কর্মস্থলে করোনা রোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১৩ নির্দেশনা

September 25, 2020, 1:49 pm

কর্মস্থলে করোনা রোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১৩ নির্দেশনা

দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের ব্যাপক বিস্তার রোধকল্পে অধিকতর সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সকল মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ দফতর/প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি পালন নিশ্চিতের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

সোমবার (১১ মে) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ প্রশাসন-১ অধিশাখার উপসচিব খন্দকার জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত ১৩ দফা নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

নির্দেশনাগুলো হলো-

>> প্রয়োজনীয় সংখ্যক জীবাণুমুক্তকরণ ট্যানেল স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা প্রদান করা যেতে পারে।

>> অফিস চালু করার পূর্বে অবশ্যই প্রতিটি অফিস কক্ষ/আঙিনা/রাস্তাঘাট জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

>> প্রত্যেক মন্ত্রণালয়/বিভাগে প্রবেশপথে থার্মাল স্ক্যানার/থার্মোমিটার দিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে অফিসে প্রবেশ করাতে হবে।

>> অফিস পরিবহনসমূহ অবশ্যই শতভাগ জীবাণুনাশক দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। যানবাহনে বসার সময় পারস্পরিক ন্যূনতম ৩ ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে এবং সকলকে মাস্ক পরিধান করতে হবে।

>> সার্জিক্যাল মাস্ক শুধু একবার হিসাবে ব্যবহার করা যাবে। কাপড়ের মাস্ক সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে পুনরায় ব্যবহার করা যাবে।

>> যাত্রার পূর্বেও যাত্রাকালীন পথে বারবার হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

>> খাওয়ার সময় শারীরিক দূরত্ব (ন্যূনতম তিন ফুট) বজায় রাখতে হবে।

>> প্রতিবার টয়লেট ব্যবহারের পরে সাবান দিয়ে জীবাণুমুক্তকরণ নিশ্চিত করতে হবে।

>> অফিসে কাজ করার সময় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

>> কর্মস্থলে সকলকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে এবং ঘনঘন সাবান-পানি বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

>> কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন সাধারণ নির্দেশনাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি নিয়মিত মনে করিয়ে দিতে হবে এবং তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে কি না তা মনিটরিং করতে হবে। ভিজিলেন্স টিমের মাধ্যমে মনিটরিং কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

>> দৃশ্যমান একাধিক স্থানে ছবিসহ স্বাস্থ্যসুরক্ষা নির্দেশনা ঝুলিয়ে রাখতে হবে।

>> কোনো কর্মচারীকে অসুস্থ পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে আইসোলেশন/কোয়ারান্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে।

Comments are closed.

এই বিভাগের আরও খবর


Share via
Copy link
Powered by Social Snap