স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ দু’জনকে হাইকোর্টে তলব

October 22, 2020, 10:56 pm

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ দু’জনকে হাইকোর্টে তলব

জেলা সদরের হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ-সিসিইউ স্থাপনে আদালতের নির্দেশনা পালনের ব্যর্থতায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক এবং ওই বিভাগের পরিচালক আমিনুল ইসলামকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী ৮ জানুয়ারি তাদেরকে সশরীরে হাজির হয়ে আদালতে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দেন আদালত।

বুধবার (৪ ডিসেম্বর) বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট ড. বশির আহমেদ।

এর আগে গত ২৮ আগস্ট দেশের সব জেলা সদরে সরকারি হাসপাতালে ৩০ বেডের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ), করোনারি কেয়ার ইউনিট (সিসিইউ) স্থাপনে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রকল্প তৈরি করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। এজন্য কত জনবল ও টাকা প্রয়োজন— সেবিষয়ে এই প্রকল্প তৈরি করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

হিউম্যান রাইটস ল’ইয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিং এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি অব বাংলাদেশের পক্ষে সংগঠনটির কোষাধ্যক্ষ মো. শাহ আলমের করা এক রিট আবেদনে আদালত এ আদেশ দেন। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক।

এদিকে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পক্ষ থেকে আদালতে দেওয়া এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশের ৪৭টি জেলা সদর হাসপাতালে ৩০ বেডের আইসিইউ-সিসিইউ স্থাপনের কাজ চলছে। আর ১৭টি হাসপাতালে আইসিইউ-সিসিইউ স্থাপনের কাজ প্রক্রিয়াধীন। প্রতিটি জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ ও সিসিইউ স্থাপনের মতো জায়গা আছে কিনা এবং প্রয়োজনীয় জনবল আছে কিনা, তার তথ্যও নেওয়া হচ্ছে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে জায়গা এবং জনবলের সংকট থাকাতে প্রয়োজনীয় জায়গা তৈরি ও জনবল পদায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে। প্রয়োজন এবং অগ্রাধিকার মূল্যায়ন করে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরবরাহের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। যেসব জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ-সিসিইউ’র কার্যক্রম চালু আছে, তার তালিকাও দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ১০টি আইসিইউ ও ৩০টি সিসিইউ বেড চালু আছে। নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে আইসিইউ বেড না থাকলেও সিসিইউ বেড আছে ২টি। কুষ্টিয়ায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে আইসিইউ বেড নেই, ১৫টি সিসিইউ বেড আছে। পাবনা জেলা সদর হাসপতালে ৪টি আইসিইউ ও ৮টি সিসিইউ বেড আছে। ভোলা সদর হাসপাতালে সিসিইউ বেড আছে ৪টি। এছাড়া, কিশোরগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নোয়াখালী, পটুয়াখালী, জামালপুর, রাঙামাটি, নেত্রকোনা, নওগাঁ, মাগুরা, চাঁদপুর এবং হবিগঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ-সিসিইউ বেড স্থাপনের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

Comments are closed.

এই বিভাগের আরও খবর


Share via
Copy link
Powered by Social Snap