Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / জেলার খবর / বাল্যবিবাহের বিশেষ বিধান বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

বাল্যবিবাহের বিশেষ বিধান বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

ছাইয়েদুল ইসলাম: বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল-২০১৭ এর বিশেষ বিধান বাতিল এবং বিয়ের সর্বনিন্ম বয়স ১৮ করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ইয়াং চেঞ্জ মেকারস কোয়ালিশন ইন বাংলাদেশ।

 রবিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে  ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ইয়াং চেঞ্জ মেকার্স কোয়ালিশনের ইন বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ) এর চাইল্ড পার্লামেন্ট মেম্বার রিফাত আক্তার বিবৃতি পাঠের মাধ্যমে সরকারের কাছে কিছু সুপারিশগুলো তুলে ধরেন, অতি দ্রুত বিধি প্রণয়ন করা, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে কমিটিসমূহের সাথে শিশুকল্যান বোর্ডের সমন্বয়, শিশুর সর্বোত্তম স্বার্থটি কি প্রক্রিয়ায় নিশ্চিত করা, অপ্রাপ্ত বয়স্ক/ শিশুর মতামতকে বাধ্যতামূলক করা মনিটরিং সেল গঠন করা , বাল্য বিয়ের শাস্তির প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে,বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ অনুযায়ী জাতীয় কর্মপরিকল্পনা পর্যালোচনা করা, স্থানীয় বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ কমিটির সক্ষমতা বৃদ্ধি করা।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, রিফাত আক্তার চাইল্ড পার্লামেন্ট মেম্বার, ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ), সায়মা আক্তার দিপ্তি প্যানেল মেম্বার ইয়ুথ ফর চেইঞ্জ, মোঃ আরিফুল হাসান মেম্বার ইয়াং চেঞ্জ মেকারস কোয়ালিশন ইন বাংলাদেশ, সাদিয়া রহমান সহকারি প্রোগ্রাম অফিসার, সিরাক বাংলাদেশ, জিসান মাহমুদ, সহকারী পরিচালক সিরাক বাংলাদেশ। বক্তারা, সরকারের কাছে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল ২০১৭ এর বিশেষ বিধানটি বাতিলের আহবান জানান।

এতে সিরাক-বাংলাদেশ, ইয়ুথ ফর চেঞ্জ, ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ), ইয়ুথ এডভাইজরি প্যানেল এবং বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী তরুণরা সম্পৃক্ত হয়।

উল্লেখ্য, বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল ২০১৭ গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মহান সংসদে পাস হয়েছে এবং গত ১১ মার্চ মহামান্য রাস্ট্রপতি তাতে সাক্ষর করেছেন। এই বিলে বিশেষ বিধানটি সম্পর্কে বর্ণিত আছে, “বিশেষ পরিস্থিতিতে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের সর্বোত্তম স্বার্থ বিবেচনা করে, পিতা-মাতা ও অভিভাবক এবং আদালতের অনুমোদনক্রমে বিবাহ কার্য সম্পন্ন হয়ে থাকে তাহলে তা অবৈধ হিসেবে বিবেচনা করা হবে না কিংবা অপরাধ হিসেবে পরিগণিত হবে না।”

ইতোমধ্যে এই বিলের খসড়া বিধিমালা প্রণয়ন করেছে বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয় এবং গত ১২ মার্চ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে যেখানে সুশীল সমাজ, সরকারের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments